১ লক্ষ ৭২ হাজার ডলার দিবেন দুই টেনিস তারকা অস্ট্রেলিয়ার দাবানলে ক্ষ*তিগ্রস্তদের

অস্ট্রেলিয়ার ভ*য়াবহ দাবানলে এখন পর্যন্ত প্রা’’’ণ হারিয়েছেন ২৮ জন। পুড়ে গিয়েছে প্রায় আড়াই হাজার বাড়ি। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অসং’’খ্য বন্যপ্রাণী। এজন্য ক্ষ’তি গ্রস্তদের সাহায্যার্থে
অনুদান দেওয়ার অ*ঙ্গীকার করলেন দুই টেনিস তারকা রজার ফেডেরার এবং রাফায়েল নাদাল।জানা গেছে, অস্ট্রেলিয়ান ওপেন শুরু হওয়ার আগে গত বুধবার মেলবোর্ন পার্কের রড লেভার এরিনায় এক চ্যারিটি অনুষ্ঠান হাজির হন রজার ফেডেরার ও রাফায়েল নাদাল। এ সময় তারা ১ লক্ষ ৭২ হাজার ডলার অনুদান দেওয়ার কথা বলেন।নাদাল বলেন, ‘এর ফলে

মানুষ হয়তো এই ভ*য়াবহ বি*পদে সাহায্যের জন্য আরও বেশি করে এগিয়ে আসবেন। এই সাহায্যের ফলে আমরা আবার নতুন করে শুরু করতে পারব। আগুনে যে ক্ষত তৈরি হয়েছে, তাতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দেওয়া যাবে।’ফেডেরার বলেন, ‘খুব ক*ঠিন সময় এটা। আমি আশা করব, এমনটা যেন আমার দেশে না হয়। আমরা খুবই ভাগ্যবান যে সুইৎজারল্যান্ডে এমনটা কখনও ঘটে না। আমি সর্বতোভাবে অস্ট্রেলিয়ার মানুষদের পাশে আছি। নিজের সময় এবং অর্থ দিয়ে সাহায্য করতে চাই।’

৮ তারকা হাফেজ তেলাওয়াত ও হৃদয়কাড়া সুরে বিশ্বদরবারে দেশের মান উঁচু করলো

আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন ও কেরাত প্রতিযোগিতায় বরাবরই সুনাম অর্জন করছে বাংলাদেশের শিশু-কিশোর হাফেজ-কারিরা।সুমধুর তেলাওয়াত ও হৃদয়কাড়া সুরে নজর কাড়ছে বিশ্ববাসীর, বিশ্বদরবারে দেশের মান উঁচু করলো তারা। তাদের অনন্য অবদানে প্রায়ই বিশ্বমিডিয়ায় শিরোনাম হচ্ছে ষোলো কোটি মানুষের ‘বাংলাদেশ’।যেসব হাফেজ ও কারি বিশ্বদরবারে দেশকে অনন্য উচ্চতায় তুলে ধরেছেন, তাদের কয়েকজনকে নিয়ে আজকের আয়োজন। সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, কাতার, মালয়েশিয়া, ভারত, বাহরাইনসহ বিভিন্ন দেশে আয়োজিত আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায় পুরস্কারপ্রাপ্ত আটজন হাফেজে কোরআনের কথা–১) হাফেজ মুহাম্মদ তরিকুল ইসলাম: আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় ১০৩টি দেশকে পেছনে ফেলে প্রথম স্থান অধিকার করেছে কুমিল্লা দাউদকান্দির হাফেজ মুহাম্মদ তরিকুল ইসলাম। ২০১৭ সনের ১৫ জুন সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক রাজধানী দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় ১০৩ প্রতিযোগীর সঙ্গে বাংলাদেশের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সে।সুমধুর তেলাওয়াত ও মুগ্ধকর সুরে বিশ্ববাসীকে তাক লাগিয়ে সেরা বিজয়ীর খেতাব অর্জন করে তরিকুল। পুরস্কার হিসেবে পায় ২ লাখ ৫০ হাজার দিরহাম (প্রায় ৫৬ লাখ টাকা)।দুবাইয়ের ক্রাউন প্রিন্স আহমদ বিন মোহাম্মদ বিন রাশেদ আল

মাকতুম তার হাতে পুরস্কার তুলে দেন।হাফেজ তরিকুল রাজধানীর মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসার ছাত্র। কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার মালিগাঁও গ্রামে তার জন্ম। বাবার নাম মো. আবু বকর সিদ্দিক। তিনি অবসরপ্রাপ্ত হাইস্কুল শিক্ষক। সাত ভাইবোনের মধ্যে তরিকুল পঞ্চম। হিফজের পাশাপাশি আলিয়া মাদ্রাসা থেকে জেএসসি পরীক্ষা দিয়েছে তরিকুল। পুরস্কারের অর্থ দিয়ে সেবামূলক কাজ ও বাবা-মাকে হজ করাতে চায় সে।
হাফেজ তরিকুল ২০১৪ সালে মাছরাঙা টেলিভিশনে ‘আল কোরআনের আলো’ প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয়, ২০১৫ সালে বাংলাভিশনে ‘পবিত্র কোরআনের আলো’ প্রতিযোগিতায় ষষ্ঠ, ২০১৭
সালে এনটিভিতে ‘পিএইচপি কোরআনের আলো’ প্রতিযোগিতায় পঞ্চম ও ২০১৭ সালে হুফফাজুল কোরআন ফাউন্ডেশনের ‘জাতীয় হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায়’ দ্বিতীয় স্থান লাভ করে।২) হাফেজ আবদুল্লাহ আল মামুন: গেল বছর (২০১৭) বিশ্বজয় করেছে হাফেজ আবদুল্লাহ আল মামুন। সৌদি আরবের ‘বাদশা আবদুল আজিজ আল সৌদ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা’য় ৭৩টি দেশকে পেছনে ফেলে প্রথম স্থান অর্জন করেছে সে।১১ অক্টোবর আয়োজিত ওই প্রতিযোগিতায় বিশ্বের ৭৩টি দেশের কিশোর ও তরুণ হাফেজরা অংশ নিয়েছিল। চারটি ক্যাটাগরিতে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। হাফেজ আবদুল্লাহ আল মামুন দ্বিতীয় ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান অর্জন করে। পুরস্কার হিসেবে পায় ক্রেস্ট এবং ১ লাখ ২০ হাজার রিয়াল।হাফেজ মামুন আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজ কারি নাজমুল হাসান প্রতিষ্ঠিত ঢাকার যাত্রাবাড়ীর তাহফিজুল কোরআন ওয়াসসুন্নাহ মাদ্রাসার শিক্ষার্থী। কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার হিরাকান্দা তার গ্রামের বাড়ি। বাবার নাম মো. আবুল বাশার।হাফেজ মামুন এর আগেও মিশরের রাজধানী কায়রোয় ৫৫টি দেশের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিতহিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে প্রথম স্থান অর্জন করে। ২০১৬ সালে দুবাইয়ে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয় এবং ২০১৪ সালের জুলাই মাসে সৌদি আরবের জেদ্দায় অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে।৩) হাফেজ নাজমুস সাকিব: আন্তর্জাতিক পুরস্কারপ্রাপ্ত হাফেজ নামজুস সাকিব একাধিকবার বিশ্ববুকে বাংলাদেশকে অনন্য উচ্চাতায় নিয়ে গেছে। শুরুটা ২০১২ সালে ভারতের ব্যাঙ্গালুরুতেঅনুষ্ঠিত এশিয়া মহাদেশ কেরাত প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে। সেবার ২৭টি দেশকে পেছনে ফেলে প্রথম স্থান অর্জন করে নাজমুস সাকিব।

তারপর ২০১৩ সালে দুবাই আন্তর্জাতিক কেরাত প্রতিযোগিতায় ৮৬টি দেশের প্রতিযোগীকে টপকে প্রথম স্থান অর্জন করে। ২০১৪ সালে পবিত্র মক্কায় অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কেরাত
প্রতিযোগিতায় ৭৩ দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করে। ওই বছরই ওমানের রাজধানী
মাসকাটে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কেরাত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে।২০১৫ সালে সুদানের রাজধানী খার্তুমে অনুষ্ঠিত আফ্রিকা মহাদেশ কেরাত প্রতিযোগিতায় ৬৫টি দেশের মধ্যে প্রথম হয়। একই বছর কাতারে অনুষ্ঠিত ১৮ দেশের মধ্যে প্রথম হয়। ২০১৬
সালে মালয়েশিয়া আন্তর্জাতিক কেরাত প্রতিযোগিতায়ও প্রথম স্থান অর্জন করে বিশ্বদরবারে বাংলাদেশের সম্মান বৃদ্ধি করেছে এই হাফেজে কোরআন।তার গ্রামের বাড়ি বৃহত্তর ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া থানাধীন ইতাইল পল্লীতে। বাবার নাম মো. আবুল কালাম আজাদ। মা সালমা বেগম। ২৯ মার্চ ২০০১ সালে তার জন্ম। ২০০৬ সালেময়মনসিংহের আমলাপাড়া আনোয়ারা হাফেজিয়া মাদ্রাসায় তার পড়াশোনার হাতেখড়ি হয়। এ মাদ্রাসা থেকেই হিফজ শেষ করে হাফেজ হিসেবে স্বীকৃতি পায়।২০০৮ সালে ঢাকার যাত্রাবাড়ীতে অবস্থিত মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসায় ভর্তিহয়। সেখানে তিন বছর অধ্যয়ন করে বর্তমানে ঢাকার বারিধারা মাদ্রাসায় অধ্যয়নরত।৪) হাফেজ মুহাম্মদ জাকারিয়া: ‘কুয়েত অ্যাওয়ার্ড’ নামে আন্তর্জাতিক কেরাত ও হিফজ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দেশের সুনাম বয়ে আনে কিশোর হাফেজ মুহাম্মদ জাকারিয়া।২০১৬ সালের ১৩ এপ্রিল কুয়েতের আওকাফ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ৫৫টি দেশের অংশগ্রহণে আন্তর্জাতিক কেরাত ও হিফজ প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থান অর্জন করে।প্রতিযোগিতাটি উদ্বোধন করেন কুয়েতের আমির শেখ সাবাহ আল আহমাদ আল জাবের আল সাবাহ। হাফেজ জাকারিয়া ৩০ পারা কোরআন হিফজ গ্রুপে চতুর্থ স্থান অর্জন করে ৭
হাজার কুয়েতি দিনার ও সম্মাননাপত্র লাভ করে। কুয়েতে অনুষ্ঠিত কোনো প্রতিযোগিতায় প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে এটাই সর্বোচ্চ সফলতা।এর আগে ২০১৫ সালের এপ্রিলে মিশরের কায়রোয় আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়ে ৫০ হাজার পাউন্ড জিতে নেয় হাফেজ মুহাম্মদ জাকারিয়া।একই বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক শহর দুবাইয়ে আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় ৮০টি দেশের প্রতিযোগীকে হারিয়ে তৃতীয় ও সুর ক্যাটাগরিতে প্রথম স্থান লাভকরে। এছাড়াও কাতার, জর্ডান ও মিশরের কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখে জাকারিয়া।হাফেজ জাকারিয়ার গ্রামের বাড়ি মানিকগঞ্জ। তার বাবা হাফেজ মাওলানা ফয়েজ উল্লাহ মানিকগঞ্জ হরিরামপুরের একটি মসজিদের ইমাম। হাফেজ জাকারিয়ার সাফল্যের যাত্রা শুরুহয় ২০১৩ সালে বাংলাদেশের বেসরকারি টিভি চ্যানেল বাংলাভিশন আয়োজিত হিফজুলকোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করার মধ্য দিয়ে। সেবার দেশের বাছাইকৃত প্রায় ৩০ হাজার হাফেজের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করে ৫ লাখ টাকা পুরস্কার পায় সে।৫) হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকি: বাহরাইনে শায়েখ জুনায়েদ আন্তর্জাতিক হিফজুলকোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে ৫৪টি দেশের মধ্যে তৃতীয় স্থান অধিকার করে বাংলাদেশের কিশোর হাফেজ সাইফুর রহমান ত্বকি। ২০১৭ সালের ২১ নভেম্বর প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। একই বছর কুয়েতে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় ৭২টি দেশের মধ্যে দ্বিতীয় হয় সে।হাফেজ ত্বকির গ্রামের বাড়ি কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর থানাধীন ডালপা গ্রামে। ২০০০ সালের ৩১ অক্টোবর তার জন্ম। তার বাবা মাওলানা বদিউল আলম। পারিবারিক শিক্ষা শেষে ঢাকারউত্তর যাত্রাবাড়ীর ধলপুর লিচু বাগান হাফিজিয়া নূরানী মাদ্রাসায় হিফজ শুরু করে হাফেজ ত্বকি। এখানেই হিফজ শেষ করে। তারপর উচ্চতর শিক্ষার জন্য ঢাকার যাত্রাবাড়ীতে মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসায় অধ্যয়ন শুরু করে।২০১৪ সালে বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভিতে প্রচারিত ‘পিএইচপি কোরআনের আলোপ্রতিভার সন্ধানে’ কেরাত প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করে। এছাড়া বিভিন্ন জাতীয় প্রতিযোগিতাসহ ২০১৭ সালে হুফফাজুল কোরআন ফাউন্ডেশন বাংলাদেশের জাতীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অধিকার করে।৬) হাফেজ আবু রায়হান: বিশ্বদরবারে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বলকারী আরেকজন হাফেজের নাম আবু রায়হান। মার্চ ’১৮-এ কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল জিম টিভির একটি রিয়েলিটি শোতে অংশ নিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করে সে। অনূর্ধ্ব পনেরো বছর বয়সিদের নিয়ে আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী কোরআন প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জনের পাশাপাশি কেরাত প্রতিযোগিতায় চতুর্থ স্থান অধিকার করে।১২ বছর বয়সি হাফেজ আবু রায়হান মাত্র আট বছর বয়সে কোরআনের হাফেজ হওয়ার সৌভাগ্য অর্জন করে। খুদে এই হাফেজ নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজারে অবস্থিত মুফতি আবদুল কাইয়ুম প্রতিষ্ঠিত বল্লভদী আল ইসলামিয়া একাডেমি শিক্ষার্থী।বড় হয়ে বিশ্বব্যাপী কোরআনের আলো ছড়াতে চায় সে।
৭) হাফেজ হেলাল উদ্দীন: পবিত্র মসজিদুল হারামে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে দেশের সুনাম বয়ে এনেছে হাফেজ মুহাম্মাদ হেলাল উদ্দীন। ২০১৫

সালের নভেম্বরে মক্কায় আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় বিশ্বের ৮০ দেশের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে তৃতীয় স্থান অর্জন করে সে।পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মক্কার আমির খালেদ আল-ফয়সাল, প্রধান বক্তা ছিলেন, পবিত্র হারাম শরিফের ইমাম আবদুর রহমান আল-সুদাইস। বিজয়ী হাফেজ মুহাম্মদ হেলাল উদ্দীনের হাতে ৭৫ হাজার সৌদি রিয়াল চেক, সনদ এবং ক্রেস্ট তুলে দেন প্রধান অতিথি।হাফেজ মুহাম্মাদ হেলাল উদ্দিন কারি নেছার আহমাদ আন নাছিরী পরিচালিত মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসার শিক্ষার্থী। মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদি খান উপজেলার গোবরদি বয়রাগাদী (নুরপুর) গ্রামে তার জন্ম। বাবা হাফেজ মাওলানা মো. মঈনুদ্দীন। মা আলেমা মারুফা।৮) হাফেজ ইয়াকুব হোসাইন তাজ: আন্তর্জাতিক কেরাত ও হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে কৃতিত্ব অর্জনকারী আরেক বাংলাদেশি ক্ষুদ্র তারকার নাম হাফেজ ইয়াকুব হোসাইন তাজ। ২০১৭ সালে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল জিম টিভির কেরাত ও হিফজ রিয়েলিটি শোতে অংশ নিয়ে ২৮টি দেশের প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে কিশোর এই হাফেজ।হাফেজ ইয়াকুব ঢাকার তানযীমুল উম্মাহ হিফজ মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। ১০ বছর বয়সি এই হাফেজের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জে। তার বাবার নাম মো. হোসাইন।হাফেজ ইয়াকুব এর আগে সৌদি আরবে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে পঞ্চম স্থান লাভ করেছিল। সেবার তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল ৯৬টি দেশের প্রতিনিধি।

নতুন সূচি প্রকাশ এসএসসি পরীক্ষার

এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার নতুন সূচি প্রকাশ করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আজ রবিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার নতুন সূচি প্রকাশ করা
হয়। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের কারণে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার তারিখ

পেছানো হয়। পূর্ব নির্ধারিত ১ ফেব্রুয়ারি পরিবর্তে এই পরীক্ষা শুরু হবে ৩ফেব্রুয়ারি। নতুন সূচি অনুযায়ী ৩ ফেব্রুয়ারি (সোমবার) বাংলা প্রথম পত্র ও ৪ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) বাংলা দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।চলবে ২৭ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। আর ২৯ ফেব্রুয়ারি থেকে ৫ মার্চের মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা নেয়া হবে।

প্রবাসী এক বাংলাদেশি নারী ইংল্যান্ড থেকে নি’খোঁজ

ফারজানা বেগম নামে ২৭ বছর বয়সী এক বাংলা‌দেশি বংশোদ্ভূত ব্রি‌টিশ নারী দুইদিন থেকে
নি’খোঁজ রয়েছেন। তিনি যুক্তরা‌জ্যের বেডফোর্ড এলাকার বাসিন্দা। পুলিশ ফারজানাকে খুঁজে বের করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।সর্বশেষ গত শুক্রবার রাত ১০টার সময় পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ হয় ফারজানার। তখন তিনি লন্ডনের নিকটবর্তী মিল্টন কেইনস এলাকার টেমস ভ্যালি এলাকায় ছিলেন।

এরপর থেকে তার কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।কেউ ফারজানার সন্ধান পেলে বা কোথাও দেখে থাকলে ১০১ নম্বরে কল করে MPC/132/20 উল্লিখিত রেফারেন্সে পুলিশকে অবহিত করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।ফারজানার বোন নূরজাহান বেগম বলেছেন, তার বোন কিছুটা অপ্রকৃতস্থ। কেউ ফারজানার স*ন্ধান পেলে যেন তার পরিবার অথবা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। বোনকে ফিরে পেতে সবার সহ‌যোগিতা কামনা করেন নূরজাহান।

চার বছরের শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিল আরেক চার বছরের শিশু

একজন পুকুরে পড়ে যাওয়ার পর আর একজন তুলতে গেলে দুজনই পুকুরে পড়ে মা’’রা যায়। রাজশাহীর নগরীর ডাশমারি এলাকায় ঘটেছে এমন একটি হৃদয় বিদারক ঘটনা।
চার বছরের শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিল আরেক চার বছরের শিশু। তারা মামাতো-
ফুপাতো ভাই। শনিবার (১৮ জানুয়ারি)এ ঘটনা ঘটে। নি’’হত শিশুরা হলো, মাসুদ রানার ছেলে ফাহিম (৪) ও রনির ছেলে ফারহান (৪)।প্রতিবেশীরা জানান, বাড়ির পাশেই শিশু দুটি খেলা করছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই তাদের পরিবারের লোকজন দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। পরে বাড়ির পাশে পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে তাদের পাওয়া যায়। পুকুর থেকে তাদের উদ্ধারের পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশু দুটিকে মৃ’’ত ঘোষণা করেন। নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, ঘটনা শোনার পর পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি।

আজ ১৯ জানুয়ারী ২০২০ প্রবাসী ভাইরা দেখে নিন আজকের টাকার রেট

যেকোন সময় মুদ্রার বিনিময় মূল্য উঠা-নামা করতে পারে।প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।সেক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন। যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা পেতে পারেন।

SAR (সৌদি রিয়াল) =22.63 ৳

MYR (মালয়েশিয়ান রিংগিত) = 20.93 ৳

USD (ইউএস ডলার) = 84.81 ৳

পাউন্ড = 110.68 ৳

AED (দুবাই দেরহাম) = 23.11 ৳

KWD (কুয়েতি দিনার) = 280.27 ৳

OMR (ওমানি রিয়াল) = 220.77 ৳

QAR (কাতারি রিয়াল) = 23.29 ৳

BHD (বাহরাইন দিনার) = 225.45 ৳

EUR (ইউরো) = 93.48 ৳

BHD (বাহরাইন দিনার) = 225.27 ৳

MVR (মালদ্বীপিয়ান রুপিয়া) = 5.48 ৳

জাপানি ইয়েন = 0.78

অস্ট্রেলিয়ান ডলার = 58.18

হংকং ডলার = 10.86

সিঙ্গাপুর ডলার = 62.67

কানাডিয়ান ডলার = 64.50

ইন্ডিয়ান রুপি = 1.18

IQD (ইরাকি দিনার) = 0.070 ৳

ZAR (সাউথ আফ্রিকান রেন্ড) = 6.00 ৳

মনে রাখবেন প্রবাসী ভাইয়েরা,হু*ন্ডিতে রেমিটেন্স পাঠানো একটি অবৈ*ধ পন্থা, এই পথে টাকা পাঠাবেন না।আপনারা ব্যাংকের মধ্যমে বাংলাদেশে টাকা পাঠান এতে আপনার টাকার গ্যারান্টি আছে,বাংলাদেশের রেমিটেন্স বাড়বে দেশের উপকার হবে। যে যেখানে আছেন নিরাপদে থাকুন, আনন্দময় হোক আপনার সারাদিন।

জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্ট কার্ড অনলাইনে সং’শোধন করবেন যেভাবে !!

আমরা অনেকেই জানি না জাতীয় পরিচয়পত্র বা ভোটার আইডি হারিয়ে গেলে, কোনো তথ্য সংশোধন বা ছবি পরিবর্তনের আবেদন করা যাবে অনলাইনে।অনেকের পরিচয়পত্র ছিল, হারিয়ে গেছে বা পরিচয়পত্রে ভুল তথ্য রয়েছে সংশোধন করা প্রয়োজন—এমন অনেকেই আছেন বুঝতে পারছেন না, তারা কীভাবে নতুন পরিচয়পত্র পাবেন বা ভুল তথ্য ঠিক করবেন। তাদের জন্যই এই বিশেষ আয়োজন।জেনে নিন যেভাবে করবেন-প্রথমে রেজিষ্ট্রেশন করতে এই লিংকে যান https://services.nidw.gov.bd/registration (এই সাইট https ফরম্যাটে হওয়াতে আপনার ফায়ারফক্স ব্রাউজারে এটা লেখা আসতে পারে This Connection is Untrusted সেক্ষেত্রে সমাধান হলো প্রথমে Understand the Risks ক্লিক করেন তারপর।* On the warning page, click I Understand the Risks.

* Click “Add Exception‘…. The Add Security Exception dialog will appear.

* Click “Confirm Security Exception” ক্লিক করুন সাইট চলে আসবে। এরপর-
১. প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী পূরণ করে নিবন্ধন প্রক্রিয়া সম্পন্ন করুন।

২. আপনার কার্ডের তথ্য ও মোবাইলে প্রাপ্ত এক্টিভেশন কোড সহকারে লগ ইন করুন।

৩. তথ্য পরিবর্তনের ফর্মে তথ্য হালনাগাদ করে সেটির প্রিন্ট নিয়ে নিন।

৪. প্রিন্টকৃত ফর্মে স্বাক্ষর করে সেটির স্ক্যানকৃত কপি অনলাইনে জমা দিন।

৫. তথ্য পরিবর্তনের স্বপক্ষে প্রয়োজনীয় দলিলাদি কালার স্ক্যান কপি অনলাইনে জমা দিন।
এবার “রেজিষ্ট্রেশনফরম পূরণ করতে চাই” ক্লিক করুন।এবার ফরমটি সঠিক ভাবে পুরণ করুন-

* এন.আই.ডি নম্বরঃ (আপনার এন.আই.ডি নম্বর যদি ১৩ সংখ্যার হয় তবে অবশ্যই প্রথমে আপনার জন্মসাল দিয়ে নিবেন উদাহরণঃ আপনার কার্ড নাম্বার ১২৩৪৫৬৭৮৯১০০০ ও জন্মসাল ১৯৯০ আপনি এভাবে দিবেন১৯৯০১২৩৪৫৬৭৮৯১০০০)

* জন্ম তারিখঃ (কার্ড দেখে সিলেক্ট করুন)

*মোবাইল ফোন নম্বরঃ (আপনার সঠিক মোবাইল নাম্বার দিন কারণ মোবাইলে ভেরিফাই কোড পাঠাবে)

* ইমেইলঃ (ইচ্ছা হলে দিতে পারেন না দিলে সমস্যা নাই, ইমেইল আইডি দিলে পরবর্তীতে
লগইন করার সময় ভেরিফাই কোড ইমেইলে সেন্ড করতে পারবেন যদি মোবাইল হাতের কাছে না থাকে)

* বর্তমান ঠিকানা: বিভাগ জেলা উপজেলা/থানা সিলেক্ট করুন ভোটার হবার সময় যা দিয়েছিলেন।

* স্থায়ী ঠিকানা: বিভাগ জেলা উপজেলা/থানা সিলেক্ট করুন ভোটার হবার সময় যা দিয়েছিলেন।

* লগইন পাসওয়ার্ড: পাসওয়ার্ড অবশ্যই ৮ সংখ্যার হতে হবে বড় হাতের অক্ষর ও সংখ্যা থাকতে হবে যেমনঃ InfoPedia71এবার সঠিক ভাবে ক্যাপচার পূরণ করুন ছোট হাতের বড় হাতের অক্ষর বা সংখ্যা যা দেওয়া আছে তাই বসান তবে স্পেস দিতে হবেনা । এবার “রেজিষ্টার” বাটন ক্লিক করে দ্বিতীয় ধাপে চলে যান।ফরম টি সঠিক ও সফল ভাবে রেজিস্টার করার পর দেখুন আপনার মোবাইলে ভেরিফাই কোড এসেছে ও ব্রাউজারে ঐ কোড সাবমিট করার অপশন এসেছে, নিচের ছবির মত স্থানেআপনার মোবাইলের ভেরিফিকেশন কোড বসান ও রেজিস্টার বাটনে ক্লিক করুন।(২ মিনিটের মধ্যে মোবাইলে কোড না আসলে পুণরায়

কোড পাঠান (SMS) ক্লিক করুন)সঠিক ভাবে কোড প্রবেশ করার পর আপনার Account Active হয়ে যাবে এবার একটি পেইজ আসবে আপনাকে লগইন করতে বলা হবে অথবা লগইন লিংক https://services.nidw.gov.bd/loginলগইন করতে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর (১৩ সংখ্যার হলে অবশ্যই প্রথমে আপনার জন্মসাল দিয়ে নিবেন) জন্মতারিখ ও আপনার দেওয়া পাসওয়ার্ড দিয়ে ভেরিফাই কোড কিভাবে পেতে চান তা সিলেক্ট করতে হবে।রেজিস্ট্রেশন করা মোবাইল নাম্বার আপনার হাতের কাছে থাকলে মোবাইলে তা না হলে ইমেইলে সিলেক্ট করুন।এবার “সামনে” ক্লিক করুন।এবার আপনার সিলেক্ট করা অপশন মোবাইলে বা ইমেইল থেকে ভেরিফাই কোড বসিয়ে লগইন করুন।দুই মিনিটের মধ্যে যদি কোড না আসে তবে “পুনরায় কোড পাঠান” বাটনে ক্লিক করুন।নির্বাচন কমিশনের কাছে থাকা আপনার ডাটাবেজের সব তথ্য দেখা যাবে এবার। নিচেরযেকোনো অপশনে চাহিদা অনুযায়ী ক্লিক করুন আর তথ্য হালনাগাদ করুন। এভাবেই আপনি আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য সংশোধন কিংবা ছবি পরিবর্তন করতে পারবেন খুব সহজেই।

এই নারী দুবাই প্রবাসীর ১৩লক্ষ টাকা নিয়ে উধাও

ভিডিও এবং স্থিরচিত্রে প্রদর্শিত নারী সাউথ ইস্ট ব্যাংকের বুথ হতে প্র*তারণার মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করেছে।এটিএম বুথে স্থাপিত সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে তার ছবি সংগ্রহ করা হয়েছে। তার পরিচয় সনাক্ত করতে পুলিশকে সহায়তা করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে।ডিবি’র সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, দুবাই প্রবাসী জনৈক সাইফুল ইসলামের

সাউথ ইস্ট ব্যাংক লিঃ শারুলিয়া, ডেমরা শাখার একাউন্ট হতে গত ৭ জুলাই’১৯
থেকে ১৮ আগষ্ট, ২০১৯ তারিখের মধ্যে উক্ত ব্যাংকের বিভিন্ন বুথ থেকে কে বা কারা
১৩,০০,০০০(তের লক্ষ) টাকা উত্তোলন করেছে। পরবর্তী সময়ে সাইফুল ইসলাম দুবাই হতে দেশে আসার পর একাউন্টে টাকা না পাওয়ায় গত ৬ নভেম্বর, ২০১৯ রমনা থানায় একটি
মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ।
তদন্তকালে উক্ত ব্যাংকের মাধ্যমে বিভিন্ন বুথের সিসিটিভির ভিডিও ফুটেজ সংগ্রহ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

সংগ্রহকৃত ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনায় দেখা যায় একজন নারী ডেবিট
কার্ডের মাধ্যমে উক্ত একাউন্টে গচ্ছিত টাকা বিভিন্ন বুথ থেকে উত্তোলন করছেন। উল্লেখিত
নারীর কোন পরিচয় কিংবা তথ্য পাওয়া গেলে ডিবি’র সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন
বিভাগের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আশরাফউল্লাহ (০১৭১৩-৩৯৮৫২৭) এর সাথে
যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো।-ডিএমপি নিউজ

১৯ জানুয়ারী ২০২০ প্রবাসী ভাইরা দেখে নিন সৌদি রিয়াল বিনিময় রেট

প্রবাসী ভাইরা আজ ১৯ জানুয়ারী ২০২০ ইং, দেখে নিন আজকের সৌদি রিয়াল বিনিময় মূল্য। মনে রাখবেন, যেকোন সময় মুদ্রার বিনিময় মূল্য উঠা-নামা করতে পারে।প্রবাসী ভাইদের উদ্দেশে বলছি আপনারা বিনিময় মূল্য (রেট) জেনে দেশে টাকা পাঠাতে পারেন।
ক্ষেত্রে আমাদের ওয়েব সাইট বা আপনার নিকটস্থ ব্যাংক হতে টাকার রেট জেনে নিতে পারেন। যখন বৈদেশিক মুদ্রার রেট বৃদ্ধি হয় তখন দেশে বৈদেশিক মুদ্রা পাঠালে বেশি টাকা

পেতে পারেন।আজ ১৯ জানুয়ারী (MYR সৌদি রিয়াল) 1 = ২২.৬০ ৳ (বাংলাদেশ সময় রাত ১২.০০ টা, তথ্যটি ইনটারনেট থেকে নেওয়া হয়েছে)গতকাল ১৮ জানুয়ারী (MYR সৌদি রিয়াল) 1 = ২২.৬৩ ৳হুন্ডিতে রেমিটেন্স পাঠানো একটি অবৈধ পন্থা, এই পথে টাকা পাঠাবেন না। আপনারা ব্যাংকের মধ্যমে বাংলাদেশে টাকা পাঠান এতে আপনার টাকার গ্যারান্টি আছে, বাংলাদেশের রেমিটেন্স বাড়বে দেশের উপকার হবে যে যেখানে আছেন নিরাপদে থাকুন, আনন্দময় হোক আপনার সারাদিন।

না ফে”রার দেশে পাড়ি দিয়েছেন পিতা-মাতা শুধু ৪ বছরের জাহিনকে রেখে

মাত্র ৪ বছর বয়সী শিশুসন্তানকে রেখে না ফে”রার দেশে পাড়ি দিয়েছেন পিতা-মাতা। মর্মান্তিক এক সড়ক দু”র্ঘটনায় জাহিনকে নিঃস্ব, করে গেছে।অবশ্য ভাগ্যক্রমে বেঁচে গেছে জাহিন। হৃদয়বিদারক ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়ার শান্তিরহাট এলাকায়। মর্মা”ন্তিক সড়ক দুর্ঘট”নায় তছনছ হয়ে গেছে একটি সাজানো সংসার।
এলোমেলো হয়ে গেছে সবকিছু। শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে স্বামী জাহিদ হোসেন শাকিল
স্ত্রী নিগার সুলতানার অসুস্থ পিতাকে দেখতে যাচ্ছিলেন সাতকানিয়ার খাগরিয়ার। সঙ্গে ছিল চার বছর বয়সী সন্তান মোজাব্বির হোসেন জাহিন।কিন্তু পথিমধ্যে মর্মা”ন্তিক সড়ক দুর্ঘ”টনায় প্রাণ হারান জাহিদ ও নিগার সুলতানা।

দুর্ঘ”টনায় বাবার কোলে থাকা জাহিন ভাগ্যক্রমে বেঁচে যায়। চিকিৎসকদের পরামর্শে জাহিনকে পরিবারের অন্য সদস্যের সঙ্গে স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে।জাহিন জানে না তার বাবা-মা চিরতরে তাকে বিদায় জানিয়েছে। আর কোনোদিন বাবা-মা ডাকতে পারবে না। নিহত জাহিদ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের ১৬ নং চকবাজার ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাইয়্যেদ গোলাম হায়দার মিন্টুর ভাগ্নে।তার গ্রামের বাড়ি কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার কৈয়ারবিলে। জাহিদ দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকলেও কয়েক বছর আগে দেশে এসে পরিবহন ব্যবসা শুরু করেন। পরিবার নিয়ে তিনি কাতালগঞ্জ এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

জাহিদের স্ত্রী নিগার সুলতানার বাবার বাড়ি সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া এলাকায়। নিগার
পেশায় একজন স্কুল শিক্ষিকা। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় প্যারেড মাঠে জাহিদ-নিগারের প্রথম দফা জা”নাজা হয়।তাদের লা”শ চকরিয়ার গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসা হলে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের সৃষ্টি হয়।এলাকায় কান্নার রোল পড়ে যায়। সবাই বাবা-মা হারা শিশুসন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত।গতকাল সকাল সাড়ে ১০টায় কৈয়ারবিল জামেউল উলুম মাদ্রাসা মাঠে দ্বিতীয় দফা জা”নাজা শেষে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দা”ফন করা হয়েছে। জানাজার নামাজে শোকাহত মানুষের ঢল নামে। সূত্র: মানবজমিন।