খাদ্যমন্ত্রীর মেয়েকে ছুরি মারলেন তিন মুখোশধারী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের মেয়ে কৃষ্ণা রুপা মজুমদারকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মার্চ) তিনজন মুখোশধারী ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান বলে ক্ষুদেবার্তায় সময় সংবাদকে জানিয়েছেন কৃষ্ণা রুপা মজুমদার। তবে এই হামলাকে তিনি পূর্ব পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন। বর্তমানে তিনি রাজধানীর মিন্টু রোডে বাবার বাসাতেই আছেন।

বিস্তারিত জানার জন্য মুঠোফোনে কয়েকবার কল দেয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

তবে কৃষ্ণা রুপার সহকর্মী এবং বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক সময় সংবাদকে জানিয়েছেন, শুক্রবার (২০ মার্চ) বিকেল তিনটার দিকে মিন্টো রেডে বাসার আশপাশেই এ ঘটনা ঘটে। এসময় তিনি রিকশায় ছিলেন। তিনজন মুখোশধারী তার রিকশা আটকে তাকে ছুরিকাঘাত করেন এবং তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে যান।

উল্লেখ্য, গত বছরের মার্চে কৃষ্ণা মজুমদার রুপার স্বামী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাজন কর্মকার মারা যান। রাত ১২টা পর্যন্ত একটি হাসপাতালে রোগীর অস্ত্রোপচার করে ইন্দিরা রোডের বাসায় যান রাজন। রোববার ভোর ৪টার দিকে রাজধানীর ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডের বাসা থেকে রাজনকে তার পরিবারের লোকজন স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভিসেরা পরীক্ষার প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক। তবে রাজনের পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *