অ’সুস্থ মা’কে নিতে এসে বাস চাপায় প্রা*ণ গেল কুবি ছাত্রের

অ’সুস্থ মাকে বাড়িতে নিতে এসে বাস চাপায় নি’হত হয়েছেন কুমিল্লা বিশ^বিদ্যালয়ের(কুবি) একাউন্টিং বিভাগের ছাত্র সুজন(২০)।সুজন কুমিল্লার বুড়িচং উপজে’লার রুপদ্দি গ্রামের মৃ’ত রহমত আলীর ছেলে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার বুড়িচং উপজে’লার কাবিলা বাঙলা গার্টেন রেস্তোরাঁর সামনে এ দুর্ঘ’টনা ঘটে। দুর্ঘ’টনায় ১৫ বাসযাত্রীসহ অটোতে থাকা চালক,

নি’হত সুজনের মা, ভাবি আ’হত হয়।সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে অ’সুস্থ হয়ে ঢাকার একটি
হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন জাহেদা বেগম(৬৫)।শুক্রবার বাস থেকে নামা’র পর মাকে নিয়ে অটোরিক্সা যোগে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন সুজন। সাথে ছিলো ভাবি রুবি আক্তার (৩৫)। মহাসড়ক অ’তিক্রমকালে ঢাকাগামী এনা পরিবহনের (ঢাকা মেট্টো-ব ১৪৯৩৬২) একটি বাস অটোরিক্সাটিকে চাপা দেয়। অটোরিক্সাটিকে চা’পা দিয়ে নিয়ন্ত্রণ হা*রিয়ে রাস্তার পাশে খাদে

পড়ে উল্টে যায় বাসটি, এতে ঘটনাস্থলে নি’হত হয় সুজন (২০)।ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থা*নার ওসি আলমগীর হোসেন জানান, একজন নি’হতের খবর পেয়েছি। পু’লিশ পৌঁছার আগে নি’হতের ম’রদেহ নিয়ে যায় স্বজনরা। দুর্ঘ’টনা কবলিত বাসটিকে উ’দ্ধার করে থা*নায় আনা হয়েছে। চালক ও হেলপার প’লাতক রয়েছে।

শিক্ষার্থীসহ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস উ’ল্টে গেছে আ;হত-৮

হাটহাজারীতে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি বাস নিয়ন্ত্রন হারিয়ে উল্টে গেছে। বাসটিতে থাকা
৮ থেকে ১০ জন শিক্ষার্থী আ;;হত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে। আহ’তদের উ’দ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়েছে। গুরুতর আহত পাঁচজনকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টার দিকে চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে এই দু;;র্ঘটনা ঘটে। তৎক্ষণিকভাবে আ’হতদের নাম জানা

যায়নি।বিশ্বকাপজয়ীদের নিয়ে নতুন দল, পরিচর্যায় নেয়া হবে ব্যবস্থাবাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন বলেছেন, বিশ্বকাপজয়ী অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারদের জাতীয় দলের জন্য প্রস্তুত করতে প্রয়োজনীয় যা যা করার তার সবই করব। দুই বছর পরে যেন তারা প্রত্যেকেই আরও পরিণত হয়, জাতীয় দলে ঢোকা তাদের জন্য সহজ হয়। বিশ্বকাপ জয়ের পরেই প্রশ্ন উঠেছে, এই ক্রিকেটারদের নিয়ে এখন কী করবে বিসিবি? তাদেরকে জাতীয় দলের জন্য তৈরি করতে কোন পথে হাঁটবে?ক্রিকেট বিশ্লেষকরা বলছিলেন, দেশের ক্রিকেটের স্বার্থেই এদের পরিচর্যা করতে হবে। সুন্দর পরিকল্পনা থাকতে হবে। টিম স্পিরিট নষ্ট করে ছেড়ে দেওয়া যাবে না। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিবি) ক্রিকেট

বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে একমত হয়ে একটি পরিকল্পনা প্রণয়ন করেছে। কাল বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) মিরপুর শের-ই-বাংলায় বিশ্বকাজয়ী ক্রিকেটারদের বরণ শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘এই দলটিকে সম্পূর্ণ ইনট্যাক্ট রাখা হবে অনুর্ধ্ব-২১ দল হিসেবে। তাদের জন্য ভিন্ন ভিন্ন কোচিং স্টাফ এবং সর্বোচ্চ প্র্যাকটিস ফ্যাসিলিটি নিশ্চিত করা হবে। যত রকমের সর্বোচ্চ সুযোগ সুবিধা দেয়া যায় তার সবই দেয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এই দুই বছর তারা প্রতি মাসে ১ লাখ টাকা করে পাবে। যদি ২ বছর পরে দেখি তখনও ওরা ভালো করছে তাহলে এর মেয়াদ আরও বাড়তে পারে। যদি দেখা যায় কারো মধ্যে বিচ্যুতি ঘটেছে বা উন্নতি হচ্ছে না কিংবা তার আগ্রহ কম তাহলে সে চুক্তি থেকে বাদ

পড়বে।’ উল্লেখ্য, কাল বিকালে দেশের মাটিতে প্রত্যাবর্তন ঘটেছে বিশ্বকাপজয়ী বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের ক্রিকেটারদের। বিকাল ৪টা ৫৫ মিনিটে বিশ্বজয়ী বাংলাদেশ দলকে বহন করা বিমানটি ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে অবতরণ করে। তাদের বরণ করে নিতে আগে থেকেই বিমানবন্দরে উপস্থিত ছিলেন সরকারের মন্ত্রী বিসিবির কর্মকর্তাবৃন্দ, এবং বিপুল সংখ্যক সাংবাদিক। বিমানবন্দর থেকে সরাসরি মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে নেওয়া হয় ক্রিকেটারদের। সেখানেও বিপুল সংখ্যক ক্রিকেটপ্রেমী তাদের বরণ করে নেয়।

সন্তানদের কাছে মোবাইল-ব্যাগ রেখে নদীতে ঝাঁ’প দিয়ে নারীর আ’ত্ম’হ’ত্যা!

টুঙ্গিপাড়ায় সন্তানদের সামনেই ব্রিজ থেকে নদীতে লা;ফ দিয়ে আফরোজা খানম (২৩) নামে এক নারী আ;ত্ম;হ;ত্যা করেছেন।

মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার শেখ লুৎফর রহমান সেতুতে এ ঘটনা ঘটে। স্বজনদের দাবি, পারিবারিক কলহের জেরে ওই নারী আ;ত্মহ;;ত্যা করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, দুপুরে ব্যাটারিচালিত ইজিবাইকে করে বোরকা পরা এক নারী ও

তার দুই সন্তান সেতুর মাঝখানে আসেন। কিছুক্ষণ দাঁড়িয়ে থেকে সন্তানদের কাছে মোবাইল ফোন ও ব্যাগ রেখে নদীতে ঝাঁপ দেন ওই নারী।

তখন তার সন্তানদের চিৎকারে লোকজন জড়ো হলে এক ব্যক্তি টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেন। ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে এসে অনেক খোঁজাখুঁজির পরও সেই নারীর সন্ধান পায়নি।

টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার সরকার শরিফুল ইসলাম জানান, ব্রিজ থেকে

ঝাঁপ দিয়ে এক নারীর আত্মহত্যার খবর পেয়ে টুঙ্গিপাড়া ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে আসে। দীর্ঘ সময় ধরে খোঁজাখুঁজির পরও ওই নারীর সন্ধান পাওয়া যায়নি।

আফরোজা নামের ওই নারীর ভাই মোহাম্মদ উল্লাহ জানান, পারিবারিক কলহের জেরে তার

বোন পানিতে ঝাঁপ দিয়েছেন। আফরোজার স্বামী বিদেশ থেকে ঠিকমতো টাকা না পাঠানোর কারণে তাদের মধ্যে ঝ;;গড়া লেগেই থাকতো। তাই অস্বছলতার কারণে তার বোন এই পথ বেছে নিয়েছে।

টুঙ্গিপাড়া থানার ওসি এ এফ এম নাসিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘পারিবারিক

কলহের জেরে আফরোজা ব্রিজ থেকে লাফিয়ে পড়েছে বলে খবর পেয়েছি। মঙ্গলবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে ওই নারীর খোঁজ পাওয়া সম্ভব হয়নি

স্বপ্নের ঘর বাঁধার আগেই লা’শ হলেন জেসমিন

স্বপ্ন ছিল স্বামীকে নিয়ে সুখের ঘর বাঁধবেন। কিন্তু সেই ঘর বাঁধার আগেই লা;;শ হয়েছেন জেসমিন আক্তার নামে এক গৃহবধূ।

ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার রসুলপুর ইউপির গোপালনগর গ্রামে। সোমবার

দুপুরে স্বামী সফিউল্লাহর ঘর থকে ওই গৃহবধূর ঝুলন্ত ম;র’দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে থানায় অভিযোগ করেন নিহতের বড় ভাই মো. খাইরুল আমিন।

নি;হ;ত জেসমিন উপজেলার ইউসুফপুর ইউপির পৈরাঙ্কুল গ্রামের বাচ্চু মিয়ার মেয়ে। ঘটনার পর থেকেই স্বামী ও শ্বশুরবাড়ির লোকজন পলাতক।

জেসমিনের ভাই খাইরুল আমিন জানান, তিন মাস আগে গোপালনগর গ্রামের মো. আব্দুল কাদের মিয়ার ছেলে সফিউল্লাহর সঙ্গে জেসমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামীকে বিদেশ

পাঠাতে শ্বশুরবাড়ির লোকজন তিন লাখ টাকা যৌ;তুক দাবি করেন। টাকা দিতে অস্বীকার

করায় জেসমিনকে বিভিন্ন সময়ে গালমন্দ ও তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করতেন স্বামীসহ পরিবারের লোকজন।

তার বোনকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নি;র্যা;তন করা হয়েছে। সোমবার তাকে পরিকল্পিতভাবে হ;;ত্যা করেই ঘরের আড়ার সঙ্গে ম;র;দে;হ ঝুলিয়ে রেখেছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

দেবিদ্বার থানার এসআই মো. নাজমুল হাসান জানান, গলায় ফাঁস দেয়া অবস্থায় মরদেহ

উদ্ধার করে সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। নিহতের গায়ে আঘাতের কোনো চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

জেসমিন আ;ত্মহ’ত্যা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়’না’তদন্তের প্রতিবেদন পেলে মৃ;’ত্যু’র আসল কারণ জানা যাবে।

কক্সবাজারে বাস উ’ল্টে নি’হ’ত ৪আরও অনেকে আ’হত হয়েছেন

চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়া অংশে যাত্রীবাহী বাস উল্টে চার জন নি;;হ;ত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আরও অনেকে আ;হত হয়েছেন। শুক্রবার (৭ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার বানিয়াছড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে নি;’;হত ও আহতদের পরিচয় মেলেনি। আ;;হতদের চকরিয়া ও আশে-

পাশের হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে।চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আনিসুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্টার লাইন পরিবহনের বাসটি কক্সবাজার থেকে ফেনী যাচ্ছিল। বানিয়াছড়া এলাকায় আসলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়।এ ঘটনায় চার জন নি;হ;;ত। আ;হত হয়েছে বেশ কয়েকজন। মৃ;;তের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। উ;;র কাজ চলছে।

ঢাকার ধামরাইয়ে ৫২জন এএসসি পরীক্ষার্থী নিয়ে বাস খাদে

ঢাকার ধামরাইয়ে ৫২জন এএসসি পরীক্ষার্থী নিয়ে বাস খাদে পরার ঘ;টনা ঘটেছে। এঘটনায়
বেশ কয়েকজন আ;হ;ত হয়েছে বলে খবরে প্রকাশ। উ’দ্ধার অ’ভিযান চলছে। বিস্তারিত আসছে…

এর আগে ২০১১ সালের ১১ জুলাই মীরসরাই স্টেডিয়াম থেকে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ
ফুটবল ফাইনাল খেলা শেষে ফেরার সময় শিক্ষার্থীদের বহনকারী একটি পিকআপ বড়তাকিয়া-আবুতোরাব সড়কের সৈদালী এলাকায় পাশের একটি ডোবায় উল্টে যায়।যেখানে ৪৪ জন স্কুল ছাত্র সহ ৪৫ জন নি;;হ’’ত হন।সাড়ে ৪ মাসেই কোরআনে হাফেজ ৯ বছরের আউয়াল
সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র আবদুল আউয়াল। দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির সমাপনী
পরীক্ষায় প্রতিটি বিষয়ে শতভাগ নম্বর পেয়ে এখন চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ছে ৯ বছরের এই শিশু।
স্কুলের পাশাপাশি সম্প্রতি মাদ্রাসায়ও পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছিল অসম্ভব মেধাবী এই ছাত্র। গত

বছর আগস্টে ফরিদগঞ্জ উপজেলা সদরে জামালুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার ভর্তি হয়ে মাত্র সাড়ে ৪ মাসে কোরআনে হাফেজ হওয়ার গৌরব অর্জন করে।আবদুল আউয়াল ফরিদগঞ্জের ৮নং পাইকপাড়া দক্ষিণ ইউনিয়নের দক্ষিণ কড়ৈতলী গ্রামের মৌলভি বাড়ির মো. মোশারফ হোসেন (মোশারফ মাস্টার) ও মাজেদা আক্তারের দুই সন্তানের মধ্যে বড়। তার বাবা একই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। চাচা মুফতি মুনওয়ার ও দাদির ইচ্ছা আউয়াল কোরআনে হাফেজ হবে।শেষ পর্যন্ত ২০১৮ সালের ১২ আগস্ট তাকে স্কুলের পাশাপাশি ভর্তি করা হয় চাঁদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় সংলগ্ন একটি মাদ্রাসায়। গত বছর ফরিদগঞ্জ উপজেলা সদরে জামালুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার নুরানি ও নাজিরা শাখায় ভর্তি করা হয়। সেখানেই তার অসম্ভব মেধার বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায় মাদ্রাসা জুড়ে।নুরানি ও

নাজিরা শাখায় পর তাকে একই মাদ্রাসার হাফেজ বিভাগে স্থানান্তর করা হয় গত বছর ৩১ আগস্ট। মাঝে স্কুলের সমাপনী পরীক্ষার কারণে মাদ্রাসা থেকে ১৫ দিনের ছুটি নেয়আউয়াল। পরীক্ষা শেষে ফের মাদ্রাসার পড়ায় মনোযোগ দেয়। ৩০ জানুয়ারি কোরআনে হাফেজের স্বীকৃতি পায় সে।কথা হয় আবদুল আউয়ালের বাবা মোশারফ হোসেনের সঙ্গে। তিনি জানান, ২০১০ সালের ২ নভেম্বর আবদুল আউলের জন্ম। প্রথম থেকেই তার মেধার পরিচয় পাচ্ছিলাম। তাকে আমি যে স্কুলে শিক্ষকতা করি সেখানে নিয়ে আসি। বিশেষ যত্নে তাকে পড়াচ্ছিলাম। ভীষণ দুষ্টু, অল্প সময় টেবিলে বসলেই সব কিছু তার আয়ত্বে চলে আসে।তিনি জানান, দাদি ও চাচার ইচ্ছা আউয়াল হাফেজ হবে। সে কারণেই মাদ্রাসায় ভর্তি করা। আমি তাকে শেষ পর্যন্ত নিয়ে যেতে চাই। জামালুল কোরআন হাফিজিয়া মাদ্রাসার প্রধানশিক্ষক হাফেজ মাওলানা ইবনে আহমদ ওয়ালী উল্ল্যাহ জানান, আউয়াল এক বছরের মধ্যেইনুরানি ও

নাজিরা শেষ করে। ২০১৯ সালের ৩১ আগস্ট হিফজ বিভাগে ক্লাস শুরু করে। সাড়ে চার মাসেই সে সফল হয়। অল্পতেই তার পড়া মুখস্থ হয়ে যায়।জামালুল কোরআন হাফিজিয়া
মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক ও পরিচালক হাফেজ মাওলানা ইবনেআহমদ ওয়ালী উল্লাহ জানিয়েছেন, আব্দুল আউয়াল মাদ্রাসায় ভর্তি হওয়ার পর এক বছরের মধ্যেই নূরানী ও নাজেরা শেষ করে। পরে গত বছরের ৩১ আগস্ট হিফজ বিভাগে ক্লাস শুরুকরে। এরপর ১৫ দিন ছুটিসহ মাত্র পাঁচ মাসে অর্থাৎ চলতি বছরের ৩০ জানুয়ারির মধ্যে সে সফলভাবে সম্পূর্ণ কোরআন মুখস্থ সম্পন্ন করে ফেলে।ইবনে আহমদ ওয়ালী উল্লাহ এও বলেন, আব্দুল আউয়াল প্রথম দিকে প্রতিদিন তিন পৃষ্ঠাকরে পড়া দিত। শেষদিকে এসে দিনে ছয় থেকে সাত পৃষ্ঠা করে পড়া দিতে পারত। যদিও সে এমনিতে সারাদিন খুব একটা পড়াশোনা করত না। অল্পতেই তার পড়া মুখস্থ হয়ে যায়।

নামাজ পড়তে বাসা থেকে মসজিদে যাওয়ার সময় স্কুলছাত্র নিহ’ত

লক্ষ্মীপুরে নামাজ পড়তে বাসা থেকে মসজিদে যাওয়ার সময় সড়ক পারাপারকালে পিকআপ
চা’পায় স্কুলছাত্র নিশান আহমেদ (১০) নিহ’ত হয়েছে। বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে সদর উপজেলার মান্দারী পূর্ব বাজারে এ দু’র্ঘটনা ঘটে।এদিকে ঘা’তক চালককে গ্রে’ফতার করে বি’চারের দাবিতে লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে বিভিন্ন স্লো’গান দিয়ে রাস্তা অব’রোধ করে বি’ক্ষুব্ধ লোকজন। এসময় সড়কের দুইপাশে

বিপুলসংখ্যক যানবাহন আ’টকা পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে পরি’স্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।নিহ’ত নিশান মান্দারী ইউনিয়নের মটবি গ্রামের আবু সিদ্দিকের ছেলে। সে উত্তর মান্দারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, ঘটনার সময় নিশান জোহরের নামাজ আদায় করার জন্য স্থানীয় বাইতুল নূর জামে মসজিদে যাচ্ছিল। এ সময় সড়ক পারাপার হতে গিয়ে দ্রুত’গতির
পি’কআপ ভ্যানচা’পায় ঘটনাস্থলেই সে নিহ’ত হয়। চালক গাড়ি নিয়ে দ্রু’ত পালিয়ে যাওয়ায়

কাউকে আ’টক করা সম্ভব হয়নি। চন্দ্রগঞ্জ হাইওয়ে পুলিশের ইনচার্জ রুহুল আমিন বলেন,
শিশুর লা’শটি উদ্ধা’র করা পুলিশ হেফাজ’তে রাখা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে অ’ভিযোগ করা হলে ম’য়নাতদন্তের জন্য সদর হা’সপাতালে পা’ঠানো হবে। চালক গাড়ি নিয়ে পা’লিয়ে যাওয়ায় কাউকে আ’টক করা সম্ভব হয়নি।

এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ একসঙ্গে তিন বন্ধু লা’শ মোটরসাইকেলে ঘুরতে বেরিয়ে

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলায় ট্রেনের ধাক্কায় এক এসএসসি পরীক্ষার্থীসহ তিন মোটরসাইকেল আরোহী নি’’হ’’ত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে
কাশিয়ানী উপজেলার ভাটিয়াপাড়া-কালুখালী রেললাইনের বিশ্বনাথপুর রেলক্রসিং এ দুর্ঘটনা ঘটে।নি’’হ’’তরা হলো কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুর ইউনিয়নের নাওরাদুলা গ্রামের ফরিদ শরীফের ছেলে এসএসসি পরীক্ষার্থী ইয়াসিন শরীফ (১৭), একই বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী হিরোন্যকান্দি গ্রামের আশরাফ আলী মিয়ার ছেলে মো. রায়হান রুহিন (১৬) ও দশম

শ্রেণির শিক্ষার্থী একই গ্রামের মো. লাবু খন্দকারের ছেলে আল আমিন খন্দকার (১৬)।স্থানীয় সূত্র জানায়, উপজেলার জয়নগর উচ্চবিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা দেখতে যায় চার বন্ধু। পরে তারা একটি মোটরসাইকেল নিয়ে ঘুরতে বের হয়। বিশ্বনাথপুর রেলক্রসিং পার
হওয়ার সময় ভাটিয়াপাড়া থেকে ছেড়ে যাওয়া কালুখালীগামী ট্রেনের ধা’’ক্কায় ঘটনাস্থলেই নি’’হত হয় তারা।তাদের অপর বন্ধু দশম শ্রেণির ছাত্র হিরোন্যকান্দি গ্রামের মো. আহাদ তালুকদারের ছেলে মো. সোহানকে (১৫) কাশিয়ানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার

অবস্থাও আ’’শঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।কাশিয়ানী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুর রহমান বলেন, চার বন্ধু মিলে একটি মোটরসাইকেলযোগে জয়নগর থেকে ব্যাসপুর যাওয়ার সময়ে রে’’লক্রসিং পার হতে গিয়ে এ দু’’র্ঘটনার শিকার হয়।বিশ্বনাথপুর রেলক্রসিং পার হওয়ার সময় তাদের মোটরসাইকেল রেললাইনের ওপর উঠে যায়। ট্রেনের ধা’’ক্কায় মোটরসাইকেল দুমড়ে-মুচ’ড়ে তারা নি’’হ’’ত হয়।

হানিফ পরিবহন নিয়ন্ত্রণ হা’রিয়ে পড়ল পুকুরে

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলায় নিয়’ন্ত্রণ হা’রিয়ে পুকুরে পড়ল যাত্রীবাহী হানিফ পরিবহন। এ ঘটনায় অ’জ্ঞাত এক নারী (২৫) ‘নি”হ”ত ও ১৫ বাস’যাত্রী আ”হত হয়েছেন।সোমবার (২০ জানুয়ারি) বিকেলে কালাই উপজেলার জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের সড়াইল এলাকায় এ দু’র্ঘ’টনা ঘটে। কালাই থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাতে ওসি বলেন, রোববার বিকেলে ঢাকা থেকে ছেড়ে

আসা জয়পুরহাটগামী হানিফ পরিবহনের বাসটি সিরাজগঞ্জ এসে চালক বদলি করে নেয়। পরে জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের কালাই উপজেলার সড়াইল নামক এলাকায় একটি পিকআপভ্যানকে সাইড দিতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পুকুরে পড়ে যায়।এতে বাসে থাকা অজ্ঞাত এক নারী নি”হ’ত এবং ১৫ বাসযাত্রী আ”হত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আ’হ’তদের উদ্ধার করে কালাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করলে দায়িত্বরত চিকিৎসক গুরুতর দুজনকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠান। নি”হ’তের মর”দেহ উদ্ধার করলেও পরিচয় মেলেনি।

চার বছরের শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিল আরেক চার বছরের শিশু

একজন পুকুরে পড়ে যাওয়ার পর আর একজন তুলতে গেলে দুজনই পুকুরে পড়ে মা’’রা যায়। রাজশাহীর নগরীর ডাশমারি এলাকায় ঘটেছে এমন একটি হৃদয় বিদারক ঘটনা।
চার বছরের শিশুকে বাঁচাতে গিয়ে জীবন দিল আরেক চার বছরের শিশু। তারা মামাতো-
ফুপাতো ভাই। শনিবার (১৮ জানুয়ারি)এ ঘটনা ঘটে। নি’’হত শিশুরা হলো, মাসুদ রানার ছেলে ফাহিম (৪) ও রনির ছেলে ফারহান (৪)।প্রতিবেশীরা জানান, বাড়ির পাশেই শিশু দুটি খেলা করছিল।

কিন্তু হঠাৎ করেই তাদের পরিবারের লোকজন দেখতে না পেয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। পরে বাড়ির পাশে পুকুরে তল্লাশি চালিয়ে তাদের পাওয়া যায়। পুকুর থেকে তাদের উদ্ধারের পর রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশু দুটিকে মৃ’’ত ঘোষণা করেন। নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ জানান, ঘটনা শোনার পর পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হয়নি।