‘আমি ভিপি নূরকে গুনি না, আর তুই তো কোথাকার সাংবাদিক’

ডব্লিউ নিউজের সম্পাদক সাগর চৌধুরীর উপর ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন হায়দারের ছোট ছেলে নাবিল হায়দারের বিরুদ্ধে সাংবাদিককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) সকালে বোরহানউদ্দিনে রাজমনি সিনেমা হলের সামনে মারধরের এ ঘটনা ঘটে।

মারধরের শিকার সাগর চৌধুরী জানান, তাকে নাবিল ফোন করে বাসা থেকে বড়দিন রাজমনি সিনেমার কাছে নিয়েই মারধর শুরু করে।

তিনি বলেন, নাবিল তার মোবাইল দিয়ে লাইভ করে বলে আমি নাকি তার মোবাইল নিয়েছি।

ভিডিওতে দেখা যায়, সাগরের জামার কলার ধরে তাকে মোবাইল চুরির অপবাদ দিচ্ছেন নাবিল।

সাগরের দাবি, ইউনিয়নের জেলেদের ১ মণ করে চাল দেওয়ার কথা, কিন্তু চাল দেওয়া হচ্ছে মাত্র ১৪-১৫ কেজি করে। বিষয়টা আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) জানাই এবং চেয়ারম্যানকে জিজ্ঞাসা করি কেন চাল কম দিচ্ছেন? যে কারণে বোরহানউদ্দিন বড় মানিকা ইউনিয়ন পরিষদের (ভোলা) চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দারের ছেলে নাবিল হায়দার আজকে আমাকে ডেকে নেয় দেখা করার জন্য। তারপর মারধর করে।

স্থানীয়সূত্রে জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে নাবিলকে রিকশায় করে কয়েক বস্তা চাল নিয়ে যেতে দেখেন সাগর। সাগরের দাবি, ওই ছবিও তিনি ইউএনওকে পাঠিয়েছেন।

মোহাম্মদ বশির গাজী বলেন, চারদিন আগে সাগর তাকে একটা ভিডিও দেখান। যেখানে দুই জেলে বলেন, তারা ১৪ কেজি করে চাল পেয়েছেন।

ওই জেলেদের কেনো চাল কম দেয়া হয়েছে, ইউপি চেয়ারম্যানের সচিবের কাছে জানতে চান ইউএনও। এরপর ইউপি চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হয়দার আলী ওই দুই জেলেকে নিয়ে ইউএনওর কাছে আসেন।

ইউএনও বলেন, তারা আমার কাছে এসে জানান যে, সাগর তাদের ওই কথা শিখিয়ে দিয়েছেন বলার জন্য।

তবে নাবিল যে রিকশায় করে চাল নিয়েছেন এমন কোনো ছবি তার কাছে পাঠাও হয়নি বলে জানান ইউএনও।

নাবিল হায়দার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী। তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি নুরুল হক নুরকে হত্যার হুমকি দেয়ার অভিযোগ আছে তার বিরুদ্ধে। ওই সময় নূর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগও দিয়েছিলেন।

সাগরের দাবি, ভিপি নুরকে হত্যার হুমকি দেয়ার সেই ঘটনার ভিডিও দেখিয়ে নাবিল তাকে বলেছেন, আমি ভিপি নুরকে গুনি না, আর তুমি তো কোথাকার সাংবাদিক।

তিনি বলেন, একথা বলতে বলতে আমাকে প্রচণ্ড রকম মারধর করে এবং মোবাইল ছিনতাইকারী হিসেবে অপবাদ দেয়।

এ বিষয়ে জানার জন্য নাবিলের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। তার মোবাইল ফোনও বন্ধ পাওয়া গেছে। তার বাবা ইউপি চেয়ারম্যান জসিমউদ্দিন হায়দারের ফোন নম্বরটিও বন্ধ পাওয়া গেছে।

সাগর চৌধুরীর উপর সন্ত্রাসী হামলায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ অনলাইন প্রেসক্লাবসহ অন্যান্য সাংবাদিক সংগঠন। তারা এই ঘটনার মূলহোতা নাবিল সহ তার সন্ত্রাসী বাহিনীকে অবিলম্বে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছেন। সূত্র: সময় নিউজ টিভি

ঢাবি’র তিন শিক্ষার্থীর করোনা প্রতিরোধে দারুন উদ্যোগ নিলেন !

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও সচেতনতা নিয়ে দেশব্যাপী সাধারন মানুষের মাঝে এক ধরনের আতঙ্ক, উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে। ঠিক সে সময়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অন্নদা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট বিভাগে অধ্যায়নরত তিন শিক্ষার্থী করোনাভাইরাস প্রতিরোধে হাত পরিষ্কার রাখার উপকরণ (হ্যান্ড স্যানিটাইজার) তৈরি করছেন।

তারা অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়নের রসায়ন বিভাগের ল্যাব ব্যবহার করে প্রায় দুই হাজার ছোট প্লাস্টিক বোতলে রাসায়নিক মিশ্রিত পানির মাধ্যমে বোতল গুলো প্রস্তত করছেন। তাদের এ কাজে অর্থনৈতিক ভাবে সহযোগিতা করছেন অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যায়নরত বায়োকেমিস্ট বিভাগের শিক্ষার্থী মো. জাহিদ হোসেন বলেন, দেশের ক্রান্তিকালে সকল নাগরিকের এগিয়ে আসা উচিত। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়ে আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত। আমাদের হাতে তেমন কাজ নেই। ভাবলাম আমরা যেহেতু বায়োকেমিস্ট বিভাগের শিক্ষার্থী আমাদের হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরী করার পূর্ব অভিজ্ঞতা আছে। তাই বসে থাকতে চাইনি। আমার অপর দুই সহপাঠী মো. তারিকুল ইসলাম ও আসিফ ইকবালকে নিয়ে হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরির পরিকল্পনা করি।

তিনি বলেন, আমাদের এই কাজে উৎসাহ দেন আমাদের প্রাক্তন বিদ্যাপীঠ অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমিন ম্যাডাম সহ অন্যান্য শিক্ষকরা। আমরা আগামীকাল মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) এই হ্যান্ড স্যানিটাইজার দরিদ্র সাধারণ মানুষের মাঝে বিতরণ করা হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপর শিক্ষার্থী মো. তারিকুল ইসলাম জানান, বিপদে মানুষের পাশে থাকার প্রয়াস প্রতিটি সুনাগরিকের থাকা প্রয়োজন। আমরা আমাদের জায়গা থেকে যতটুকু পারছি করছি। আমরা দুই হাজার পিস রাসায়নিক মিশ্রিত হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্লাস্টিক বোতল প্রস্তুত করেছি। আগামীকাল থেকে বিনামূল্যে দুই হাজার সাধারন মানুষের মাঝে বোতলগুলো বিতরণ করা হবে।

অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমিন জানান, বর্তমানে দেশে করোনাভাইরাস প্রকোপের কারণে দেশের প্রতিটি নাগরিক উদ্বিগ্ন। আমাদের প্রাক্তন ছাত্ররা এই মুহূর্তে কিছু একটা করার আগ্রহ প্রকাশ করলে আমরা তাদের উৎসাহ দেই। তাদের আর্থিক সার্পোট দেই। তাদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাই। আগামীকাল সে গুলো ফুটপাত সহ সাধারন মানুষের মাঝে বিতরণ করা হবে। এতে সাধারণ মানুষ একটু হলেও উপকার পাবে।

বাইরে ঘুরছেন কেন, প্রশ্ন করতেই দুবাই প্রবাসী ম্যাজিস্ট্রেটকে মারতে গেলেন !

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার চাঁচড়া এলাকায় দুবাই প্রবাসী মিজানুর রহমান মিজানকে বাইরে ঘোরাঘুরি করতে দেখে এলাকাবাসী ফোন পেয়ে সেখানে অভিযানে যান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) ভূপালী সরকার।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও তার সাথে থাকা পুলিশের দুই সদস্যকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও মারধর করতে উদ্যত হন প্রবাসী মিজানুর রহমান ও তার দুই ভাই।

শুক্রবার (২৩ মার্চ) এ ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় এলাকা থেকে চলে আসেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পরে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ যাওয়ার আগেই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় চাচড়া গ্রামের মনতেজ শেখের ছেলে প্রবাসী মিজানুর রহমান মিজান ও তার দুই ভাই জাহিদ ওরফে কালু ও সাইদ হোসেন।

গ্রামবাসীরা জানায়, গত ৪/৫ দিন আগে দুবাই থেকে দেশে আসেন মিজান। তিনি আসার পর থেকে হোম কোয়ারেন্টাইনে না থেকে বাইরে ঘোরাঘুরি করতে থাকেন। এলাকার লোকজন তাকে বোঝালেও তিনি মানছেন না।

অভিযানের সাথে থাকা পুলিশের এএসআই লিটন আলী জানান, আমরা দুইজন এসিল্যান্ড স্যারের সাথে ভ্রাম্যমাণ আদালতে যাই। এরপর বিদেশ ফেরত ওই ব্যক্তিসহ তার দুই ভাই আমাদেরকে মারধর করার চেষ্টা করে। পরে থানা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সরকারী কমিশনার (ভূমি) ভূপালী সরকার জানান, গত ৪/৫ দিন আগে দুবাই থেকে এসেছেন চাঁচড়া গ্রামের মিজানুর রহমান। আসার পর থেকে তিনি বাইরে ঘোরাঘুরি করছেন। এলাকাবাসীর কাছ থেকে এমন অভিযোগ পেয়ে তিনি শুক্রবার ওই গ্রামে যান। সেখানে গিয়ে তিনি মিজানুর রহমানকে বলেন আপনি বাইরে ঘোরাঘুরি করছেন কেন? তিনি তখন মসজিদে নামাজ পড়ার কথা বলেন। ওই ব্যক্তিকে বাড়িতে নামাজ পড়ার কথা বললে, তিনি সেটা মানেননি। তখন তার দাবি অনুযায়ী সরকারি আদেশ পালনে দেশে ফেরার কাগজ দেখানোর অনুরোধ করি। তিনি কাগজ না দেখিয়ে অকথ্য ভাষা ব্যবহার করেন। আমাদেরকে এক প্রকার লাঞ্ছিত করে। এরপর কাগজপত্র না দেখিয়ে খলিলুর রহমানকে তথ্য-দাতা ভেবে তাকে আমাদের সামনে মারতে উদ্যত হয় এবং পুলিশ ও আমার ওপর চড়াও হয়।

তিনি আরো জানান, এ সময় ইউএনও স্যার ও কালীগঞ্জ থানার ওসিকে বিষয়টি জানালে থানা থেকে অতিরিক্ত ফোর্স আসার আগেই আসামিরা পালিয়ে যায়। মোবাইল কোর্টে বিচার না হওয়ায় নিয়মিত মামলা করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়।

কালীগঞ্জ থানার ওসি মুহা: মাহাফুজুর রহমান মিয়া বলেন, বর্তমানে আসামিরা পলাতক আছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

করোনায় আক্রান্ত মা ও ৩ ভাই-বোনের মৃত্যু, আরো ২ বোন হাসপাতালে !

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনায় ভাইরাস মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। এ ভাইরাসে বয়স্কদের মৃত্যু হচ্ছে, এমন ধারণা তৈরি হলেও এবার একই পরিবারে ৪ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউ জার্সি অঙ্গরাজ্যের ওই পরিবারটিতে গত সপ্তাহে মারা যায় তিন জন। সবশেষ গেল বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) আরেকজনের মৃত্যু হয়েছে বলে ওই পরিবারের আত্মীয়দের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে খবর দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম ভিনসেন্ট ফুসকো। এর আগে ভিনসেন্টের মা গ্রেস ফুসকো (৭৩) বুধবার রাতে মারা যান করোনায়। তার কয়েক ঘণ্টা আগে মারা যান তার বড় ভাই কারমিনে ফুসকো। এর আগে মারা যান আরেক ভাই।

ভিনসেন্টের ভিনসেন্টের ছোট বোন এলিজাবেথ গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সবই ছিল অবিশ্বাস্য। মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সকালে আমি ঘুম থেকে উঠি। তখন মা আমাকে ডেকে বলে, লিজ্জি, আমার ভালো লাগছে না। রিটারও একই অবস্থা। টনির অবস্থাও একই। তুমি কি আমাদের সাহায্য করতে পারবে?, আমি বললাম অবশ্যই মা’

তিনি জানান, ১০ মার্চ থেকে ১৯ মার্চ-এই নয় দিনে করোনা কেড়ে নিয়েছে এলিজাবেথের মা, দুই ভাই ও বোনের প্রাণ।

তার আরও দুই বোন হাসপাতালে ভর্তি আছেন এবং দুইজনের অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানিয়েছেন এলিজাবেথ।

খাদ্যমন্ত্রীর মেয়েকে ছুরি মারলেন তিন মুখোশধারী

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের মেয়ে কৃষ্ণা রুপা মজুমদারকে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে।

শুক্রবার (২০ মার্চ) তিনজন মুখোশধারী ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যান বলে ক্ষুদেবার্তায় সময় সংবাদকে জানিয়েছেন কৃষ্ণা রুপা মজুমদার। তবে এই হামলাকে তিনি পূর্ব পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন। বর্তমানে তিনি রাজধানীর মিন্টু রোডে বাবার বাসাতেই আছেন।

বিস্তারিত জানার জন্য মুঠোফোনে কয়েকবার কল দেয়া হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

তবে কৃষ্ণা রুপার সহকর্মী এবং বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অধ্যাপক সময় সংবাদকে জানিয়েছেন, শুক্রবার (২০ মার্চ) বিকেল তিনটার দিকে মিন্টো রেডে বাসার আশপাশেই এ ঘটনা ঘটে। এসময় তিনি রিকশায় ছিলেন। তিনজন মুখোশধারী তার রিকশা আটকে তাকে ছুরিকাঘাত করেন এবং তার মোবাইল ফোনটি নিয়ে যান।

উল্লেখ্য, গত বছরের মার্চে কৃষ্ণা মজুমদার রুপার স্বামী এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) ম্যাক্সিলোফেসিয়াল সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. রাজন কর্মকার মারা যান। রাত ১২টা পর্যন্ত একটি হাসপাতালে রোগীর অস্ত্রোপচার করে ইন্দিরা রোডের বাসায় যান রাজন। রোববার ভোর ৪টার দিকে রাজধানীর ফার্মগেটের ইন্দিরা রোডের বাসা থেকে রাজনকে তার পরিবারের লোকজন স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ভিসেরা পরীক্ষার প্রতিবেদনে বলা হয়, তার মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক। তবে রাজনের পরিবারের দাবি তাকে হত্যা করা হয়েছে।

কোয়ারেন্টাইনের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে রাজউকের ‘কুঞ্জলতা’ !

উত্তরা ১৮ নম্বর সেক্টরের দিয়াবাড়ীতে রাজউক উত্তরা অ্যাপার্টমেন্ট প্রকল্পের মধ্যে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার করার জন্য একটি কম্পাউন্ডে কাজ শুরু করেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে একটি দল।কোয়ারেন্টাইনের জন্য ঠিক করা কুঞ্জলতা নামে ওই কম্পাউন্ডের ৪ টি ভবনে ৮৪ টি করে ফ্ল্যাট রয়েছে। মোট ৩৩৬ টি ফ্ল্যাট কোয়ারেন্টাইনের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে।

শুক্রবার (২০ মার্চ) সকাল থেকেই সেখানে ধোয়া মোছা এবং আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র আনতে শুরু করে সেনাবাহিনী। এতে সহায়তা করে রাজউকসহ অন্যান্য সংস্থা।

আইএসপিআর-এর পরিচালক লে. কর্নেল আব্দুল্লাহ ইবনে জায়েদ বলেন, স্ক্রিনিং করার পরে যারা সন্দেহভাজন, যাদের আলাদা করা প্রয়োজন তাদের আলাদা করে সেনাবাহিনীর কাছে দিয়ে দেবে। সেনাবাহিনী তাদের ডাটা এন্ট্রি করবে, এবং তাদেরকে এই কোয়ারেন্টাইন ক্যাম্পে নিয়ে যাবে। এখানে ওই সময়টুকুর মধ্যে তাদের চিকিৎসা, আহার এবং অন্যান্য সুবিধা প্রদান করবে।

একই পরিবারের চারজন নিখোঁজ নারায়ণগঞ্জে

নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়ায় এক সপ্তাহ ধরে নি;খোঁ;জ রয়েছেন এক ব্যবসায়ী, তার স্ত্রী ও স্কুলপড়ুয়া দুই মেয়ে। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি বাসা থেকে মিরপুরে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বের হয়ে আর ফেরেননি।নি;খোঁ;জদের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়া বাগে জান্নাত মহল্লায় সিরাজুল ইসলামের বাড়ির নিচতলার একটি ফ্ল্যাটে সপরিবারে ভাড়া থাকত তোবারক হোসেন।তিনি শহরের বঙ্গবন্ধু রোডের লুৎফা টাওয়ার সংলগ্ন সড়কের ফুটপাতের অস্থায়ী দোকানে গার্মেন্টের তৈরি পোশাক বেচাকেনা করতেন।

ওই ফ্ল্যাটে তোবারক হোসেনের সঙ্গে তার স্ত্রী মুক্তা, দুই মেয়ে ফারিয়া ও ফাহমিদা থাকতো।বড় মেয়ে ফারিয়া চাষাঢ়া বন্ধু স্মৃতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী ও ফাহমিদা একই স্কুলের প্রথম শ্রেণির ছাত্রী।তোবারক হোসেন মিরপুর ব্লক বি গাবতলী ১ম কলোনি জব্বার হাউজিং এলাকার রেজাউল হকের ছেলে।তার বাবা-মা বর্তমানে মিরপুর সেকশন ৬ এর কেন্দ্রীয় মসজিদের বিপরীতে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকেন।গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ব্যবসায়ী তোবারক, তার স্ত্রী মুক্তা ও দুই মেয়ে ফারিয়া ও ফাহমিদাকে নিয়ে মিরপুরে বেড়ানোর উদ্দেশ্যে চাষাঢ়ার বাসা থেকে বের হন।

তবে এক সপ্তাহেও তারা ওই বাড়িতে ফেরেননি। তোবারক ও মুক্তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনও বন্ধ রয়েছে।এ পরিস্থিতিতে মুক্তার মা মেহের বেগম বুধবার সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। পরে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই সাব্বির ঘটনাস্থলে তদন্তে যান।এসআই সাব্বির জানান, কী কারণে সপরিবারে নিখোঁজ হয়েছে, সেটা এখনো স্পষ্ট নয়। সাধারণ ডায়েরি করার পর নিখোঁজের ঘটনার তদন্ত চলছে।

বেতনের টাকা জমিয়ে কেনা অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামবাসীকে বিনে পয়সায় সেবা দেন শেফালী

বিনে পয়সায় গ্রামের মানুষকে অ্যাম্বুলেন্স সেবা দিয়ে যাচ্ছেন নাটোরের বড়াইগ্রামের শিক্ষিকা
শেফালী খাতুন। দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা এ সেবা পেয়ে খুশি প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাসিন্দারা। দ্রুত হাসপাতালে নিতে না পারায় আত্মীয়ের মৃ’ত্যু।এই ঘটনা ভীষণ নাড়া দেয় বড়াইগ্রাম উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রাম দোগাছির স্কুলশিক্ষক শেফালী খাতুনকে। সেই ভাবনা থেকে ছয় বছর বেতনের টাকা জমিয়ে, গত দুই মাস ধরে চালু করেন ফ্রি অ্যাম্বুলেন্স সেবা। চব্বিশ ঘণ্টা চালু থাকায় উপকৃত হচ্ছেন আট গ্রামের মানুষ।সহযোগীতা পেলে আরও একটি অ্যাম্বুলেন্স ও মানুষের মধ্যে সচেতনতা বাড়ানোর ইচ্ছা শেফালী খাতুনের। এ কাজে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেন তার স্বামী।

মেরিগাছা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা শেফালী খাতুন জানান, গাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ,জ্বালানি খরচ এবং অ্যাম্বুলেন্স চালকের বেতন সবকিছুই তিনি নিজেই বহন করেন। মানুষের জন্য কিছু করার স্বপ্ন থেকেই এ কাজ শুরু করেন শেফালী খাতুন। নির্দিষ্ট অঞ্চলের মধ্যেই এ সেবা দেয়া হলেও ভবিষ্যতে সেবার পরিধি আরও বাড়ানোর ইচ্ছা আছে শেফালী খাতুনের।শেফালী খাতুনের স্বামী ময়লাল হোসেন জানান, মানুষের জন্য কিছু করতে পারলে তারা তৃপ্তি পান। স্থানীয় সরকার ও প্রশাসন যদি পাশে দাঁড়ায় তাহলে কাজের গতি আরও বাড়ানো সম্ভব।নাটোরের বড়াইগ্রামের উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী বলেন, এ কাজের মধ্য দিয়ে মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন শিক্ষিকা শেফালী খাতুন। গেল দুই মাসে ৪৫ জন রো’গী এ সেবা নিয়েছে এবং দু’টি ম’রদেহ বাড়িতে পৌঁছে দেয়া সম্ভব হয়েছে।

গ্রামে বাড়ি করতে ঋণ সহজ শর্তে দেবে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক –

মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড (এমটিবি) সম্প্রতি গ্রামীণ গৃহঋণ সেবা চালু করেছে। এই
ঋণ সেবার আওতায়, ইউনিয়ন পর্যায়ের বাসিন্দারা পাকা বাড়ি নির্মাণ, উন্নয়ন ও বর্ধিতকরণের জন্য ঋণ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।এমটিবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী সৈয়দ মাহবুবুর রহমান সম্প্রতি এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে গুলশানস্থ ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এমটিবি সেন্টারে ‘এমটিবি গ্রামীণ গৃহঋণ’ সেবা আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করেন।ঋণ গ্রহীতারা মাসিক কিস্তিতে এই ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন।

তারা তাদের পাকা বাড়ি নির্মাণে, বর্ধিতকরণে অথবা মেরামতে এমটিবি’র শাখাসমূহ থেকে সর্বোচ্চ ৮০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ঋণ সেবা গ্রহণ করতে পারবেন।অনুষ্ঠানে মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড (এমটিবি)-এর অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালকদ্বয় সৈয়দ রফিকুল হক ও চৌধুরী আখতার আসিফ, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক তারেক রিয়াজ খান, হেড অব বিজনেস রিটেইল ব্যাংকিং ডিভিশন মো. তৌফিকুল আলম চৌধুরী এবং গ্রুপ চিফ কমিউনিকেশন্স অফিসার আজম খানসহ মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক লিমিটেড (এমটিবি)-এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

যশোরে শিক্ষার্থীসহ পিকনিকের বাস সড়ক দূ’র্ঘট’নায়

যশোরের উলাশী স্কুল শিক্ষার্থীদের একটি পিকনিকের বাস সড়ক দূর্ঘটনায় পতিত হয়েছে। এতে
১ জন নিহত ও ২০ জন আহত হবার খবও পাওয়া গেছে। প্রর্তক্ষ্যদর্শীদের বরাত দিয়ে আমাদের স্থানীয় সংবাদদাতা জানান, বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারী) উলাশী নামক এলাকায় একটি
পিকনিকের বাসের সাথে অন্য একটি বাসের সংঘর্ষে এই হতাহতের ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যাক্তি বাসের চালক বলে জানা যায়।বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানালেন গোপালপুর প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কমিটি টাঙ্গাইলের গোপালপুর প্রেসক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ১৭ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার প্রেসক্লাব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে অধ্যাপক জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সন্তোষ কুমার দত্ত।

সম্মেলন শুরুতে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সম্মেলন শেষে প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কর্মকর্তাগণ স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন ও সকল শহীদদের প্রতি আত্মার মাগফেরাত কামনা করে মোনাজাত করেন।সম্মেলনে দৈনিক ইত্তেফাকের সংবাদদাতা অধ্যাপক জয়নাল আবেদীনকে সভাপতি ও দৈনিক সংবাদের সন্তোষ কুমার দত্তকে সম্পাদক করে ১০ সদস্য বিশিষ্ট কার্যকরি কমিটি গঠিত হয়।নির্বাচিত অন্য কর্মকর্তারা হলেন সহসভাপতি খন্দকার আব্দুস সাত্তার (দৈনিক জনতা), কে এম মিঠু (দৈনিক ভোরের কাগজ), আব্দুস সালাম (দৈনিক দিনকাল), যুগ্মসম্পাদক কায়ছার মিয়া (আমাদের বার্তা), সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সাইফুল ইসলাম (দৈনিক আমাদের নতুন সময়), কোষাধ্যক্ষ বিধান চন্দ্র রায় (দৈনিক ভোরের ডাক), তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মো. সেলিম হোসেন (দৈনিক যুগান্তর), দপ্তর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. নূর আলম (দৈনিক ভোরের সময়)।